অনভিজ্ঞদের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে বিক্রয় বৃদ্ধির দিক নির্দেশনা

ব্র্যান্ড সচেতনতা ব্যাপারটা অসাধারন। যখন আপনি সোশ্যাল মিডিয়াতে মার্কেটিং করছেন, তখন দৃশ্যটি একটু ভিন্ন কারণ আপনার টার্গেট করা কাস্টমার-রা ফেসবুক, পিনটেরেস্ট, লিঙ্কডইন, ইন্সটাগ্রাম এবং অন্যান্য সামাজিক প্ল্যাটফর্মে সময় কাটায়। ব্যবহারকারীরা তাদের পরিবারের সদস্যদের এবং বন্ধুদের সাম্প্রতিক জীবনের ঘটনার ব্যাপারগুলোতে আপডেট থাকতেই এখানে আসেন।

সুতরাং, তারা আপনার ব্র্যান্ড পেজে লাইক দেয়া বা আপডেটগুলি  কে অনুসরণ করার মানে এটা না যে তারা ‘বিক্রয়’ বোতামটি টিপে কিছু কিনতে মানসিকভাবে প্রস্তুত। সামাজিক নেটওয়ার্কগুলি, মূলত ব্র্যান্ড এক্সপোজারের একটি মাধ্যম। এই সামাজিক প্লাটফর্ম ব্যবসার বিশাল উৎস। যদি ফেসবুক একটি দেশ হতো, তাহলে এটি বিশ্বের বৃহত্তম জনসংখ্যার দেশ হত।

ফেসবুক এর মাধ্যমে আপনি পৃথিবীর প্রতি ৫ জন মানুষের মধ্যে ১ জন মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারবেন। বর্তমানে ফেসবুক ব্যাবহারকারীদের সংখ্যা সামাজিক প্ল্যাটফরমে  একটি বড় জায়গা নিয়ে  দাঁড়িয়ে আছে। এই প্লাটফর্ম একাই ব্র্যান্ড সচেতনতা নিয়ে আসতে পারে। এই প্লাটফর্মের  মাধ্যমে টার্গেট মার্কেট থেকে বিক্রয় করা অনেক সহজেই সম্ভব এবং বিক্রয় সহজ হয়েছে বলে ফেসবুক, পিনটেরেস্ট, ইনস্টাগ্রাম এবং এমনকি ইউটিউবেও ব্র্যান্ডের পণ্যের বিজ্ঞাপন দেয়া শুরু করেছে।

আমি নিজেই ইনস্টাগ্রাম থেকে ৩ মাসে $৩৩২0 আয় করেছি। এবং এই আর্টিকেল-এ  আমি আপনাকে একটি পরিবেশ তৈরি করতে সাহায্য করব যা
আপনাকে আরও গ্রাহক পেতে সহায়তা করবে।

১. একটি শক্ত সামাজিক সম্প্রদায় তৈরি করুন এবং তাদের সাথে ব্যস্ত থাকুনঃ

সোশ্যাল মিডিয়ায় আপনি আপনার ভক্তদের সাথে প্রকৃতভাবে যোগাযোগ করে একটি সম্পর্ক তৈরি করতে সক্ষম হবেন এবং এই সম্পর্ককে সেলস পয়েন্টে নিয়ে আসাও সম্ভব।  আপনার কাস্টমারদের আস্থা পাওয়ার আপনার পোস্টগুলো মজার এবং আকর্ষণীয় রাখুন। বিক্রয় সংক্রান্ত বিষয় ছাড়াও অন্য বিষয় শেয়ার করুন, এতে করে আপনার পেজ-এ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা হবে। মানসিক দৃষ্টিকোণ থেকে, মাসলোর হায়ার্কি অব নীড অনুযায়ী ভালবাসা এবং সম্পত্তির প্রয়োজন তৃতীয় স্তরে রয়েছে।


এছাড়া কোম্পানির ব্যাকগ্রাউন্ড ফটো, ভিডিও এবং ইভেন্টগুলি আপলোড এবং শেয়ার  করলে ফেসবুক পেজ আরও আকর্ষণীয় হবে। ফ্যাশান ব্র্যান্ড, ইভারলেন এর একটি উদাহরণ নিচে দেয়া হলোঃ

 

 

তারা তাদের টার্গেট মার্কেট-এর সাথে কথা বলে অথবা চ্যাট করে, এতে করে একটি বিশ্বাস-এর সম্পর্ক তৈরি হয় ।

 

 

আপনার টার্গেট অডিয়েন্সের সাথে যোগাযোগ রাখার জন্য আরেকটি চমৎকার মাধ্যম হচ্ছে সোশাল মিডিয়া গ্রূপগুলি। আমি ডিজিটাল মার্কেটিং এর  অনেক লিঙ্কডইন গ্রূপ এর সাথে যুক্ত আছি এবং নিয়মিত তাদের সাথে আমার কন্টেন্ট শেয়ার করি।

 

 

তবে আগে আপনি নিশ্চিত হোন  যে তারা আপনাকে ব্র্যান্ড প্রচার করার অনুমতি দেয় কিনা এবং আপনার আগের পোস্ট গুলো গ্রুপ এ পোস্ট হয়েছে কিনা এবং সেগুলো স্প্যামারদের দ্বারা যে প্রভাবিত হয়নি।

 

 

আর সবচাইতে ভালো হচ্ছে আপনার নিজের গ্রুপ তৈরি করা, তাতে নিজের কর্তৃত্ব বজায় থাকে। Debbie Hodge  তার নিজের ফ্রি ফেসবুক গ্রুপটা “লীড ম্যাগনেট” হিসেবে প্রচার করেন। এছাড়াও  Mridu Khullar  তার ইমেল তালিকা্র সদস্যদের ‘সিক্স ফিগার ফ্রিল্যান্সিং ফেসবুক গ্রুপ’ এ যোগদানের জন্য আমন্ত্রিত করেন।

 

এই গ্রুপটি ৮০০+ জন সদস্যে পরিণত হয়েছে। গ্রূপের  মান উন্নত  করার পাশাপাশি, Mridu এখন মাঝে মাঝে তার কোর্স প্রচার  করার জন্যও একটি অসাধারন চ্যানেল তৈরি করেছেন।

 

 

একইভাবে OkDork এর Noah Kagan একটি ফ্রি ‘ফেসবুক 1K কোর্সের’ জন্য তার ফেসবুক গ্রুপে বিশেষ অফার দিয়েছেন। অফার অনুযায়ী এই গ্রূপের মেম্বাররা তাদের আরো ২ জন বন্ধুকে এই গ্রূপে সাইন আপ করার জন্য কাজ করবে আর এভাবে এই গ্রুপ-এ  সদস্যের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে ৫০০০+ হয়েছিল।

 

 

সুতরাং আপনার নিজের ফেসবুক গ্রুপ এবং লিঙ্কডইন গ্রুপ তৈরি করতে চাইলে আজ –ই কাজ শুরু করে দিন।

 

 

২. প্রভাবশালী এবং সামাজিক মিডিয়া সেলিব্রিটিদের সাথে সম্পর্ক তৈরি করুন

YouTube star Zoella, তাঁর প্রথম উপন্যাস “Girl Online,”  প্রথম সপ্তাহে ৭৮ হাজার  কপি বিক্রি করে, ১৯৯৮ সালে  “JK Rowling এর “Harry Potter and the Philosopher’s Stone” কে হার মানিয়ে যায়।

সামাজিক নেটওয়ার্কগুলি সৃজনশীল মানুষদের জন্য একটি সুন্দর ভবিষ্যৎ তৈরি করার একটি দুর্দান্ত সুযোগ এবং সেলিব্রিটি দ্বারা তৈরি সোশ্যাল মিডিয়া মানুষকে অনেক প্রভাবিত করে।

 

 

এই কারণে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হল ব্লগারদের জন্য অন্যতম একটি কৌশল  যার মাধ্যমে অর্থ  অনলাইনে  তৈরি করা হয়। Pat Flynn তার গ্রাহকদের  Bluehost, Leadpages এবং অন্যান্য অনলাইন পণ্য কিনার জন্য  সুপারিশ করে প্রতি মাসে ১০০,০০০ ডলার এর বেশী  আয় করে।

 

আরেকজন প্রভাবশালী ব্যক্তি হল Tim Ferriss। Kevin Lavelle, Tim এর প্রশংসা করেন এবং Tim  এর সুপারিশ এর উপর Cross Fit কীভাবে স্টক আউট হয়েছিলেন তার কথা বলেন।

“Tim Ferriss তার পডকাস্টে CrossFit সম্পর্কে কথা বলেছিল যার প্রথম বিষয় ছিল Mizzen And Main এর পন্য আর তাতেই পরবর্তী রবিবারের মধ্যেই আমাদের স্টক শেষের পর্যায়ে যাওয়ার উপক্রম হয়েছিল” – Kevin Lavelle

আপনাকে আপনার প্রথম প্রচার শুরু করতে এবং আপনার টার্গেট মার্কেট  গ্রুপগুলির সাথে সংযুক্ত করতে সাহায্য করতে নিচে একটি নিয়ম দেখান হলঃ

 

আপনি যদি একটু উচ্চ প্রভাবশালী মানুষদের  লক্ষ্য করেন, তাহলে দেখবেন, আপনাকে প্রথমে তাদের বিশ্বাস অর্জন করতে হবে এবং কোন  প্রত্যাশা ছাড়া সকল কাজ করতে হবে।
Gary Vaynerchuk-এর বই- “Jab, Jab, Jab, Right Hook-এ সবকিছু খুব সুন্দর ভাবে লিখা আছে।

 

 

ভাল ফলাফল পেতে একটু সতর্কতার সাথে কাজ করুন এবং ডলার আয় করতে আপনার ল্যান্ডিং পেজগুলোতে প্রতিযোগিতা পরিচালনা এবং ট্র্যাফিক বাড়ানোর জন্য সোশ্যাল মিডিয়া সেলিব্রিটি্র সাহায্য নিয়ে করে কাজ করুন। UWheels তাদের পণ্য প্রচার করার জন্য ইন্সটাগ্রাম সেলিব্রিটিদের এবং মডেল দের দ্বারা পণ্য  বিক্রয় করে মিলিয়ন ডলার এর চেয়ে বেশী আয়  করেছিল।

 

 

৩. পেইড সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর মাধ্যমে আপনার ব্যবসা বাড়াতে থাকুনঃ

সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মগুলি বাজারে ডিরেক্ট মার্কেটিং এর জন্য প্রতিনিয়ত নির্দেশনা দিচ্ছে। গত দুই বছরে ফেসবুকে প্রচারিত পোস্টগুলির লাভের সংখ্যা বেড়ে ৮০% হয়েছে।

 

 

আপনি একটি ছোট আমউন্ট যেমন  ৳১০ প্রতি দিন আয় করতে পারেন এবং একটু চেষ্টা করলে  আরো সঠিক ROI  অর্জন করতে পারবেন।
ফেসবুকের বিজ্ঞাপন বিশেষজ্ঞ,  Jon Loomer , ২০১৪ সালের অগাস্টে ফেসবুক থেকে প্রতি মাসে ২৫১,০০০ এর কাছাকাছি আয় করতেন। এবং সেই সময়ে তার ফাসেবুক পেজ-এ মাত্র প্রায় ৭০,০০০ জন  ফ্যান ছিল।

 

 

কীভাবে তিনি ফেসবুক থেকে এই ধরনের বিশাল ট্রাফিক এর ব্যবস্থা করেন?
তিনি  সামান্য বাজেটে পেইড ফেসবুক বিজ্ঞাপনগুলি কারা দেখতে পারছেনা তা লক্ষ্য করতেন এবং তাদের পেছনে রি-মার্কেটিং করতেন।

 

 

যদি কোন বিজ্ঞাপন আপনার ছোট ব্যবসার জন্য ভাল ROI প্রদান না করে , তাহলে বিজ্ঞাপনটি বন্ধ করুন। অনেক মার্কেটার-রা একটি ভুল করে থাকেন, সেটি হল যখন তারা বিজ্ঞাপন দিতে শুরু করে, তখন তাদের বাজেটকে সমানভাবে বিতরণ করা হয়। পেইড মার্কেটিং  বিশেষজ্ঞ Larry Kim তার বিরুদ্ধে  পরামর্শ দেয়।

 

পুনঃবিপণন অথবা রি- মার্কেটিং হল একই প্রত্যাশায় বহুবার বিজ্ঞাপনের কাজ করা।

প্রশ্ন আসতে পারে, কিভাবে এটি কৌশলগতভাবে অর্জন করা যায়?
একবার যখন আপনি রি মার্কেটিং নিয়ে কাজ করবেন, তখন আপনি আপনার গ্রাহকের রিসেন্ট  ব্রাউজিং হিস্টরি এবং অন্যান্য তথ্য দেখে নিন। Larry hails এটাকে “সুপার- মার্কেটিং” বলেছে। তবে আপাতত এটি শুধুমাত্র, ফেসবুক এবং টুইটারে চালানো সম্ভব।

 

৪. “বাই বাটন” এবং শপিং কার্টগুলি নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করু্ন ঃ

ইন্সটাগ্রাম এবং পিন্টেরেস্ট –এর মত ভিসুয়াল প্ল্যাটফর্মে বিক্রয় করার  অনেক নির্দেশনা দেয়া আছে। ক্লাসিক সামাজিক প্ল্যাটফর্ম বিজ্ঞাপনগুলো গ্রাহকদের জন্য খুব অসাধারন কোন কেনাকাটার অভিজ্ঞতা প্রদান করে না।

“ইন-অ্যাপ” নামের একটি এপ্লিকেশন আছে যেখানে বিজ্ঞাপনগুলি সামাজিক প্ল্যাটফর্ম ছাড়াই ব্যবহারকারীকে ক্রয় করার অনুমতি দেয়। আপনি Ecwid এর মত একটি অ্যাপ্লিকেশন-এর সাহায্যে, আপনার ফেসবুক পেজ-এ  শপিং কার্ট সেট আপ করতে পারেন।

২০১৫ সালের জুনে, পিন্টেরেস্ট ‘Buy It’ বাটনের  সাথে তার কেনাকাটার জিনিসগুলোর ও ঘোষণা করেছিল এবং নিরাপদ লেনদেন নিশ্চিত করার জন্য তারা অ্যাপেল পে-এর সাথে পার্টনারশিপ করেছিল।

 

 

আপনার বিক্রয় বৃদ্ধি  করার জন্য ইন্সটাগ্রাম এবং টুইটার-এ দেখানো হয়েছিল কিভাবে বিজ্ঞাপনদাতারা তাদের টার্গেট  তৈরি করে। এটি একটি দুর্দান্ত কৌশল হতে পারে, কারণ এটি সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে মোবাইল-এ কেনাকাটা সহজ করে তোলে। সুতরাং, আপনি যদি একটি ইকমার্স ব্যবসায়ের মালিক হয়ে থাকেন, তাহলে আমি সুপারিশ করব যে আপনি বিভিন্ন সোশাল মিডিয়াগুলিতে ‘এখনই কিনুন’/  ‘buy now’  বিজ্ঞাপন চালু করে দিন।

 

উপসংহার:

আপাতদৃষ্টিতে সামাজিক মিডিয়া ছোট ব্যবসার জন্য একটি ব্র্যান্ড সচেতনতার মাধ্যম বলে মনে হতে পারে।
লক্ষ লক্ষ ছোট ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সামাজিক প্রচার মাধ্যমকে কাজে লাগিয়ে তাদের ব্যবসার প্রসার ঘটাচ্ছে। এটি স্টার্ট আপগুলির মধ্যে টপ মার্কেটিং কৌশল হিসাবে দাঁড়িয়েছে। তবে নিচের পরিসংখ্যানগুলি যেন আপনাকে নিরুৎসাহ না করে,

 

 

আমি এই আর্টিকেলে ৪ টি চমৎকার কৌশল নিয়ে আলোচনা করেছি যা দিয়ে আপনি আপনার সেলস বাড়াতে পারেন। এখন এটা পুরোপুরি আপনার উপর নির্ভর করছে যে আপনি কোন কৌশল নিয়ে কাজ শুরু করবেন এবং কত তাড়াতাড়ি শুরু করবেন।

আপনি কোন কৌশল ব্যবহার করতে চান তা নিচে কমেন্ট সেকশন-এ জানিয়ে দিন।

Leave a Comment